ডাচ্ বাংলা ব্যাংক লিমিটেড

বেসরকারী উদ্যোগে প্রথম জয়েন্ট ভেঞ্চার ব্যাংক হিসেবে ১৯৯৫ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে ডাচ্ বাংলা ব্যাংক লি:। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই সাধারণ গ্রাহকের আস্থা অর্জনে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছে। প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে সারাদেশে সর্বাধিক ১৩০২টি এটিএম বুথ ও ৯৬টি শাখা নিয়ে নিয়মিত গ্রাহক সেবা দিয়ে চলেছে।


প্রধান কার্যালয়ের ঠিকানা
১৯৫, মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, সেনা কল্যাণ ভবন, ৫ম তলা, মতিঝিল, ঢাকা।
ফোন: ৭১৭৬৩৯০-৯৩, ফ্যাক্স: ৯৫৬১৮৮৯,
ওয়েব সাইট: www.dutchbanglabank.com

অন্যতম শাখার ঠিকানা
ঢাকা শহরে মোট ২৯টি শাখা রয়েছে। কয়েকটি শাখার ঠিকানা নিম্নরূপ _
  • প্লট নং – ৬, ব্লক # সিইএস (এফ), ৭২, গুলশান এভিনিউ, গুলশান, ঢাকা – ১২১২।
  • প্লট নং – ৭৫, ব্লক # বি, কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ, ঢাকা – ১২১৩।
  • বাড়ী # ৫০০, এ/১ (২য় তলা), রোড# ৮, ধানমন্ডি রেসিডেন্সিয়াল এলাকা, ঢাকা – ১২০৫।
  • প্লট # ৭, রোড # ৭, সেক্টর # ৪, উত্তরা, ঢাকা।
  • জেরিন ম্যানসন, ৫৫ মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা, মতিঝিল, ঢাকা – ১০০০।
  • ১, দিলকুশা বাণিজ্যিক এলাকা, মতিঝিল, ঢাকা – ১০০০।
  • ৬৫, নবাবপুর রোড, ঢাকা – ১০০০।
  • জাহাঙ্গীর টাওয়ার (তৃতীয় তলা), ১১৪, ১১৫, ১১৬, ইসলামপুর রোড, ঢাকা – ১১০০।

একাউন্ট খোলার নিয়ম
নিজের ২ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি, নমিনীর ১ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি, পাসপোর্টের ১ম সাত পাতার ফটোকপি, জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি, ড্রাইভিং লাইসেন্স এর ফটোকপি, ওয়ার্ড কাউন্সিলের সার্টিফিকেট প্রভৃতি কাগজপত্র একাউন্ট খোলার সময় প্রয়োজন হয়। সেভিংস, কারেন্ট, যৌথ হিসাব, কোম্পানী হিসাব খোলা যায়।

একাউন্ট, চেক বই  এটিএম কার্ডের বাৎসরিক খরচ
ডাচ বাংলা ব্যাংকে সেভিংস একাউন্টে ৫,০০০ টাকা পর্যন্ত কোন প্রকার বাৎসরিক চার্জ প্রদান করতে হয় না। তবে ৫,০০১ টাকা থেকে ২০,০০০ টাকায় বাৎসরিক ২৩০ টাকা (ভ্যাট সহ) এবং ২০,০০১ টাকা থেকে উর্দ্ধে যে পরিমানই থাকুক তার জন্য বাৎসরিক ৬৯০ টাকা (ভ্যাট সহ) প্রদান করতে হয়।
ক্যারেন্ট একাউন্টে প্রতি বছর ভ্যাট সহ ১১৫০ টাকা প্রদান করতে হয়। ভ্যাট সহ ১০ পাতার চেকের জন্য প্রদান করতে হয় ৬৯ টাকা। এছাড়া ইন্টারনেট ব্যাংকিং এর বার্ষিক ফি ২০০ টাকা।
এটিএম বুথে ব্যালেন্স জানার জন্য স্লিপ নিলে ৩ টাকা চার্জ কাটে, তবে যদি অটো কোন স্লিপ বুথ থেকে বেরিয়ে আসে তাহলে কোন প্রকার চার্জ কাটে না। এছাড়া বিভিন্ন কার্ডের বাৎসরিক চার্জ নিম্নরুপ
ক্রমিক নং
কার্ডের নাম
ফি ভ্যাট সহ
০১.
ডিবিবিএল নেক্সাস ক্ল্যাসিক১ম বছর ফ্রি, দ্বিতীয় বছর ৪৬০ টাকা
০২.
ডিবিবিএল নেক্সাস মাস্টার কার্ড১ম বছর থেকেই ৫৭৫ টাকা
০৫.
ডিবিবিএল নেক্সাস ভিসা ইলেকট্রন১ম বছর থেকেই ৫৭৫ টাকা
০৬.
ডিবিবিএল নেক্সাস মাস্টার কার্ড (ইন্টারন্যাশনাল)১ম বছর থেকেই ১৫ ডলার

এটিএম বুথে যেসব অংকের নোট পাওয়া যায়
ডাচ বাংলা ব্যাংকের প্রত্যেক এটিএম বুথে ১০০ টাকা থেকে শুরু করে ১,০০০ টাকা পর্যন্ত সকল অংকের নোট পাওয়া যায়।

যেসব বুথে টাকা জমা দেওয়া যায়
যেসকল বুথে ফাস্ট ট্র্যাক লেখা  সম্বলিত স্টিকার রয়েছে কেবল সেই বুথগুলোতে টাকা জমা দেয়া যায়।

বুথে কার্ড আটকে গেলে
ব্যালেন্স কাটার পর টাকা বের না হলে বা অন্য কোন কারণে বুথে কার্ড আটকে গেলে সংগে সংগে ১৬২১৬ নম্বরে কল করে সমস্যার কথা জানাতে হবে। এছাড়া ৩ থেকে ৫ কার্য দিবস পর এটিএম বুথের নাম্বার, ঠিকানা,  সময়সহ আবেদনপত্রের মাধ্যমে নিকটস্থ শাখা বা যেশাখায় একাউন্ট খোলা হয়েছে সেখানে আবেদন করতে হবে।

ব্যাংক স্টেটমেন্ট
একাউন্ট হোল্ডার চাইল বছরে কোন প্রকার চার্জ ছাড়া ২ বার ব্যাংক স্টেটমেন্ট তুলতে পারবে। তবে এর চেয়ে বেশীবার নিতে হলে প্রতিবার ১০০ টাকা + ভ্যাট ১৫% অর্থাৎ ১১৫ টাকা প্রদান করতে হবে।

মহিলাদের জন্য আলাদা ব্যবস্থা
উত্তরা শাখাতে মহিলাদের জন্য একটা ফ্লোর রয়েছে। এছাড়া মহিলাদের জন্য আলাদা কোন শাখা এবং কোন বুথ ব্যবস্থা নেই।

ঋণ প্রাপ্তি  পরিশোধ
বর্তমানে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশে  এসএমই ছাড়া সকল প্রকার ব্যাংক লোন দেয়া বন্ধ রয়েছে। এসএমই পেতে হলে অন্তত তিন মাসের ব্যবসায়িক অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। উদ্যোক্তাদের ১৩ থেকে ১৪ শতাংশ সুদে ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত এখানে এসএমই ঋন দেয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। এখানে প্রসেসিং ফি ১% প্রদান করতে হয়। নারী উদ্যোক্তাদের জন্য জামানত বিহীন ২৫ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋন দেয়া হয়ে থাকে। এসব ঋন শোধ করতে ০১ থেকে ০৫ বছর সময় পাওয়া যায়।

বিবিধ
ডিডি এক দিনে এবং চেক সাথে সাথেই ক্যাশ করা যায়। তবে এখানে টিটির কোন ব্যবস্থা নাই। এই ব্যাংকের প্রত্যেক শাখাতে যথেষ্ট পরিমান অগ্নি নির্বাপন ব্যবস্থা,নিরাপত্তা ব্যবস্থা, নিজস্ব জেনারেটর এবং শীতাতাপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা বিদ্যমান।

No comments:

Post a Comment